Select your Top Menu from wp menus
বুধবার, ১৩ই ডিসেম্বর ২০১৭ ইং ।। রাত ১১:০০

এই গরমে ত্বকের যত্ন

মডেল- কবিতা, কনসেপ্ট-আরজে সাইমুর, লেবেল-স্বদেশ নিউজ২৪.কম, ছবি-শাকিল
মডেল- কবিতা, কনসেপ্ট-আরজে সাইমুর, লেবেল-স্বদেশ নিউজ২৪.কম, ফটোগ্রাফি শাকিল

লাইফ স্টাইল ডেস্ক, সম্পাদনায়-আরজে সাইমুর, স্বদেশ নিউজ২৪.কম: এই গরমে নারীদের ত্বকের প্রতি নিতে হয় বিশেষ যত্ন। ঘর থেকে বেরোলেই ট্রাফিক, ধুলোবালি, বায়ু দূষণের মুখোমুখি হতে হয়। এতে ত্বকের ওপর বিরূপ প্রভাব পড়ে। ভারতের রূপ বিশেষজ্ঞ শাহনাজ হুসাইন গরমে ত্বকের যত্নের জন্য নেয়ার কিছু টিপস দিয়েছেন। চলুন জেনে নেয়া কিভাবে গরমে ত্বক ভালো রাখবেন। রাতে শোবার আগে ভালো করে ত্বক পরিষ্কার করে নিন। মুখের মেকআপ, শরীরের ঘাম, তৈলাক্ততা, ময়লা এবং দূষিত পদার্থ পরিষ্কার করে নিন। তুলসী এবং নিমের ফেসওয়াশ গ্রীষ্মের জন্য দারুণ উপকারী হতে পারে। এটি অশুদ্ধতা দূর করবে, ব্রণ এবং লাল ফুসকুড়ি থেকে ত্বককে রক্ষা করবে। ত্বকের প্রশান্তি যোগাবে। ত্বক পরিষ্কারের পর ঠাণ্ডা গোলাপ জল বা গোলাপের স্কিন টনিক ব্যবহার করুন। এটি শুধু ত্বককে তরতাজাই রাখবে না, শীতল অনুভূতি যোগাবে। এটি ত্বকের উপরিভাগের রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি এবং উজ্জ্বলতা বাড়াবে। গরম এবং আদ্র আবহাওয়ায় ত্বকের জন্য আদর্শ হতে পারে ম্যাট ময়েশ্চাইরাইজার। শুষ্ক ত্বকের জন্য ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন। আপনার কাজ যদি ভ্রমণ করা হয় তাহলে তৈলাক্ত ত্বকের জন্য সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন। বাজারে অয়েল ফ্রি সানস্ক্রিনও পাওয়া যায়। সপ্তাহে দুই বা তিনবার ফেসিয়াল স্ক্রাব ব্যবহার করুন। ফেসিয়াল স্ক্রাব ত্বকের মৃত কোষগুলোকে দূর করে এবং ত্বকের গভীর থেকে ময়লা পরিষ্কার করে। এটি ত্বক উজ্জ্বল এবং বিশুদ্ধ করে। আপনার ত্বক শুষ্ক হলে রাতে ত্বক পরিষ্কার করার পর নারিশিং ক্রিম ব্যবহার করুন। বৃত্তাকার স্ট্রোক ব্যবহার করুন। ত্বকের উপরের দিকে জোরে চাপ দিন এবং নিচের দিকে নামার সময় ধীরে ধীরে ব্যবহার করুন। তিন থেকে চার মিনিট ম্যাসাজ করার পর মুছে ফেলুন। সপ্তাহে দুই বার ফেইস মাস্ক ব্যবহার করুন। ঠোঁট এবং চোখের অংশ ছাড়া পুরো মুখে এটি ব্যবহার করুন। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। আপনার মেকআপকে তরতাজা রাখতে চাইলে কিছু জিনিস হাতব্যাগে রাখুন। গ্রীষ্মের সময় সুগন্ধিযুক্ত ভেজা টিস্যু রাখতে পারেন। ত্বকের তেল এবং ঘাম পরিষ্কার করতে এটি ব্যবহার করুন। এটি আপনার ত্বক সতেজ রাখবে। চুল: চুল ফ্যাশন বা স্টাইলের একটি অংশ। কর্মক্ষেত্রে চুলে ছেড়ে রাখবেন না। বিশেষ করে গ্রীষ্মের সময়। চুল রোল করুন এবং পিন আপ করে ক্লিপ দিয়ে বাঁধুন। ইচ্ছে করলে পনি টেইল করে পেছন দিকে বাঁধতে পারেন। আপনার পনি টেইল ছোট হোক বা বড়, চুল ফিতা দিয়ে বাঁধুন। চুলের ফিতার রঙ আপনার পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে নিন। চুলের জন্য দরকারি বিভিন্ন সামগ্রী ব্যবহার করতে পারেন। নানা ধরনের ক্লিপ এবং অন্যান্য আকর্ষণীয় উপকরণ ব্যবহার করতে পারেন। কর্মক্ষেত্রে চুলের অতিরিক্ত সজ্জার দরকার নেই। কর্মক্ষেত্রে বিনুনিও খুব কাজে দেয়। যদি এতে সময় লাগতে পারে। বড় এবং মাঝারি উভয় ধরনের চুলের জন্য বিনুনি করা যেতে পারে।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *