শিরোনাম

সহজেই দূর করুন চোখের নিচের কালো দাগ

| ২৭ ডিসেম্বর ২০১৭ | ৪:১৩ অপরাহ্ণ

সহজেই দূর করুন চোখের নিচের কালো দাগ

রায়হান কবির, স্বদেশ নিউজ২৪.কম: অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা, কম ঘুম, হরমোনের পরিবর্তন কিংবা বদ খাদ্যাভ্যাস আনতে পারে আপনার চোখের নিচের কালো দাগ। যা নষ্ট করে দেয় চেহারার সৌন্দর্য। তাই আমরা নিয়ে এসেছি কিছু ঘরোয়া সমাধান যা কোনো প্রকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়াই দূর করবে এই দাগ।তাহলে জেনে নেয়া যাক কী কী উপাদান আছে এই তালিকায়।

টমেটো: চোখের নিচের কালো দাগ দূর করার একটি চমৎকার উপাদান হচ্ছে টমেটো। সম্পূর্ণ প্রাকৃতিকভাবে এটি দাগ কমিয়ে ত্বককে করবে নরম এবং কোমল। ১ চা চামচ টমেটোর রসের সঙ্গে ১চা চামচ লেবুর রস মিশিয়ে চোখের নিচে লাগিয়ে ১০ মিনিট রেখে দিন। এরপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এভাবে সপ্তাহে দুই দিন করে লাগানো যাবে।   

আলু: আলু কুড়িয়ে তার থেকে রস বের করে নিতে হবে। এবার আলুর রসের মধ্যে কটন বল ভিজিয়ে চোখের পাতার ওপর ১০ মিনিট রাখতে হবে এবং পরে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে।  

ঠাণ্ডা টি ব্যাগ: চোখের কালো দাগ দূর করার আরো একটি সহজ উপায় হল টি ব্যাগ। প্রথমে যেকোনো টি ব্যাগ(গ্রিন টি হলে সব থেকে ভালো) পানি দিয়ে ধুয়ে ফ্রিজে রেখে দিতে হবে। তারপর সেটি ঠাণ্ডা হলে চোখের ওপর রাখতে হবে। 

বাদামের তেল: বাদামের তেল ভিটামিন ই সমৃদ্ধ যা আপনার ত্বককে করবে মসৃণ এবং দাগ দূর করার জন্য খুবই উপকারী। শুধুমাত্র বাদামের তেলটি চোখের নিচে লাগিয়ে সারারাত রাখতে হবে এবং পরদিন সকালে তা ধুয়ে ফেলতে হবে।

ঠাণ্ডা দুধ: প্রতিদিনের ব্যাবহারের জন্য ঠাণ্ডা দুধ খুব কার্যকরী। দুধ ত্বককে করে তোলে মসৃণ। দুইটি কটন বল ঠাণ্ডা দুধে ভিজিয়ে ১৫ মিনিট চোখের ওপর রেখে ধুয়ে ফেলতে হবে। এতে খুব অল্প সময়ে সহজেই চোখের দাগ দূর করা যায়।

গোলাপ জল: রূপচর্চার জন্য গোলাপ জলের কোনো তুলনা হয় না। এটি ত্বকে আনে উজ্জ্বলতা এবং স্নিগ্ধতা। এরজন্য প্রয়োজন দুইটি কটন বলের, যা গোলাপ জলে ভিজিয়ে চোখের ওপর রাখতে হবে। এভাবে করে ১০ মিনিট রেখে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে।  

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

ফেইজবুকে আমরা

  • পুরনো সংখ্যা

    SatSunMonTueWedThuFri
    15161718192021
    22232425262728
    293031    
           
          1
    9101112131415
    30      
         12
           
          1
    2345678
    30      
       1234
    262728293031 
           
         12
           
      12345
    2728293031  
           
    891011121314
    2930     
           
        123
           
        123
    25262728   
           
    28293031   
           
          1
    2345678
    9101112131415
    3031     
          1
    30      
      12345
    272829    
           
        123
           
    28