শিরোনাম

যেভাবে সেমিফাইনালে চার দল

| ০৮ জুলাই ২০১৮ | ৯:৩৬ অপরাহ্ণ

যেভাবে সেমিফাইনালে চার দল

রাশিয়া বিশ্বকাপ এখন ক্রান্তিলগ্নে অবস্থান করছে। আর মাত্র সাতদিন পর বিদায় ঘটবে বিশ্বকাপের। দেখতে দেখতে বিশ্বকাপের ৬০টি ম্যাচ শেষ হয়েছে। আর বাকি রয়েছে ৪টি ম্যাচ। তন্মধ্যে রয়েছে দুটি সেমিফাইনাল, তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ও ফাইনাল ম্যাচ।
৩২ দল থেকে ইতোমধ্যে বিদায় নিয়েছে ২৮ দলের। এখনও পর্যন্ত টিকে রয়েছে ৪টি দল। আগামী ১০ জুলাই প্রথম সেমিফাইনালে ফ্রান্সের মুখোমুখি হবে বেলজিয়াম। আর ১১ জুলাই দ্বিতীয় সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের মুখোমুখি হবে ক্রোয়েশিয়া।
এবারের বিশ্বকাপে যাদের হট ফেবারিট হিসেবে ধরা হয়েছিল তাদের মধ্যে ফ্রান্স, ইংল্যান্ড ও বেলজিয়াম তাদের যোগ্যতা প্রমাণ করেছে। ক্রোয়েশিয়া ফেবারিট তকমার বাইর থেকে নিজেদের যোগ্যতাবলে সেমিফাইনালে অবস্থান করছে। এবার যদি তারা ইংল্যান্ডকে হারিয়ে ফাইনালেও যায় তবে অবাক হওয়ার কিছুই নেই।
দেখে নিবো চার দলের সেমিফাইনাল যাত্রা কতটা সুখকর হয়েছে। সেমিফাইনালের চার দলের মধ্যে একই গ্রুপ থেকে উঠেছে দুই দল। তারা হলো বেলজিয়াম ও ইংল্যান্ড। তারা গ্রুপ জি থেকে বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করে।
ফ্রান্স (লা ব্লুজ)
গ্রুপ সি থেকে রাশিয়া বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করে ১৯৯৮ সালের বিশ্বকাপ জয়ী ফ্রান্স। এবারের আসরে ফ্রান্সের দলটি তারুণ্যে গড়া। তাদের মূল ক্ষিপ্রতা দেখে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে নক আউট পর্বের ম্যাচে। ফ্রান্স তাদের প্রথম ম্যাচে কাজান অ্যারেনায় অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হয় সেখানে তারা অস্ট্রেলিয়াকে ২-১ গোলে পরাজিত করে। ফ্রান্সের হয় গোল করেন আঁতোয়ার গ্রিজম্যান আরেকটি গোল হয় আত্মঘাতী থেকে। দ্বিতীয় ম্যাচে একতেরিনবার্গে পেরুর মুখোমুখি হয় সেখানে তারা পেরুকে ১-০ গোলে পরাজিত করে। ফ্রান্সের হয়ে সে ম্যাচে গোল করেন কিলিয়ান এমবাপ্পে। তৃতীয় ম্যাচে মস্কোতে ডেনমার্কের মুখোমুখি হয়ে সেখানে তারা ডেনিশদের সঙ্গে গোলশুন্য ড্র করে।
সি গ্রুপ থেকে চ্যাম্পিয়ন হয়ে তারা নক আউট নিশ্চিত করে। নক আউটে তারা ডি গ্রুপের রানার্সআপ দু’বারের চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনার মুখোমুখি হয়। কাজান অ্যারেনার সে ম্যাচে তারা আলবেসিলেস্তেদের ৪-৩ গোলে পরাজিত করে। দলের হয়ে দুই গোল করেন কিলিয়ান এমবাপ্পে, একটি করেন আঁতোয়ান গ্রিজম্যান ও বেনজামিন পাভার্ড। কোয়ার্টার ফাইনালে তারা নিঝনি নভরোগেদে ল্যাটিনের আরেক দেশ উরুগুয়ের মুখোমুখি হয়। সে ম্যাচে তারা উরুগুয়েকে ২-০ গোলে পরাজিত করে। দলের হয়ে গোল করেন রাফায়েল ভারানে ও কিলিয়ান এমবাপ্পে। আগামী ১১ জুলাই সেমিফাইনালে তাদের প্রতিপক্ষ রেড ডেভিল খ্যাত বেলজিয়াম। সেন্ট পিটার্সবার্গ স্টেডিয়ামের ম্যাচটি বাংলাদেশ সময় রাত ১২টায় অনুষ্ঠিত হবে।
ক্রোয়েশিয়া (ভাত্রেনি)
গ্রুপ ডি থেকে অংশ নিয়ে অনেকটা রূপকথার বালকের মতোই তারা বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে অবস্থান করেছে। অথচ বিশ্বকাপ শুরুর আগে তাদের কেউই গনায় ধরেনি। ক্রোয়েশিয়া তাদের প্রথম ম্যাচে কালিনিনগ্রাদে নাইজেরিয়ার মুখোমুখি হয়। সেখানে তারা সুপার ঈগলদের ২-০ গোলে পরাজিত করে। দলের হয়ে গোল করেন এতেবো ও লুকা মদ্রিচ। দ্বিতীয় ম্যাচে নিঝনি নভগোরোদে আর্জেন্টিনার মুখোমুখি হয়। সেখানে তারা আলবেসিলেস্তেদের ৩-০ গোলে পারজিত করে। দলের হয়ে গোল করেন আন্তে রেবিক, লুকা মদ্রিচ, ইভান রাকিটিচ। তৃতীয় ম্যাচে তারা রোস্তভ অন ডনে আইসল্যান্ডের মুখোমুখি হয়। সেখানে তারা নবাগত দলটিকে ২-১ গোলে পরাজিত করে। দলের হয়ে গোল করেন মিলান বাদেলজ ও ইভান পেরেসিস।
গ্রুপ ডি থেকে চ্যাম্পিয়ন হয়ে তারা নক আউট নিশ্চিত করে। নক আউটে তারা সি গ্রুপের রানার্সাআপ ২০১৬ ইউরো বিজয়ী ডেনমার্ককে পায়। নিঝনি নভরোগেদে ডেনমার্কের সঙ্গে ফুলটাইম ও অতিরিক্ত সময়ে ১-১ গোলে (দলের হয়ে গোল করেন মারিও মানজুকিচ) সমতা থাকায় খেলা টাইব্রেকারে গড়ায়। সেখানে ডেনমার্ককে ৩-২ গোলে পরাজিত করে কোয়ার্টারে স্থান করে নেয়। কোয়ার্টারে ফিস্ট স্টেডিয়ামে স্বাগতিক রাশিয়ার সঙ্গে ফুলটাইম ও অতিরিক্ত সময়ে ২-২ গোলে (দলের হয়ে গোল করেন আন্দ্রে কামারিচ ও ডোমাগজ ভিদা)সমতা থাকায় খেলা টাইব্রেকারে গড়ায়। সেখানে রাশিয়াকে ৩-৪ গোলে পরাজিত করে সেমিফাইনালে স্থান করে নেয়। আগামী ১০ জুলাই সেমিফাইনালে তাদের প্রতিপক্ষ ১৯৬৬ সালের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ড। মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামের ম্যাচটি বাংলাদেশ সময় রাত ১২টায় অনুষ্ঠিত হবে।
বেলজিয়াম (রেড ডেভিলস)
গ্রুপ জি থেকে অংশ নেয় বেলজিয়াম। যেখানে তাদের প্রতিপক্ষ ছিল ইংল্যান্ড, তিউনিসিয়া ও পানামা। বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে পানামার বিরুদ্ধে ফিস্ট স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হয় তারা। সেখানে তারা পানামাকে ৩-০ গোলে পরাজিত করে। দলের হয়ে গোল করেন ড্রায়েজ মার্টেনজ ও রোমেলু লুকাকু। দ্বিতীয় ম্যাচ স্পার্তাক মস্কোতে তিউনিসিয়াকে ৫-২ গোলে উড়িয়ে দেয়। দলের হয়ে গোল করে ইডেন হ্যাজার্ড, রোমেলু লুকাকু ও বাতসুয়াই। তৃতীয় ম্যাচে কালিনিনগ্রাদে ইংল্যান্ডকে ১-০ গোলে পরাজিত করে। দলের হয়ে গোল করেন আদনান জানুজাজ।
গ্রুপ জি থেকে চ্যাম্পিয়ন হয়ে নক আউট নিশ্চিত করে রেড ডেভিলস খ্যাত বেলজিয়াম। নক আউট পর্বে তারা গ্রুপ এইচের রানার্সআপ এশিয়ার দেশ জাপানকে পায়। রোস্তভ অ্যারেনায় শেষ মুহূর্তের গোলে জাপানকে ৩-২ গোলে পরাজিত করে। দলের হয়ে গোল করেন জন ভার্টুনগেন, ফেলাইনি ও চাডলি। কোয়ার্টার ফাইনালে তারা পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিলকে প্রতিপক্ষ হিসেবে পায়। কাজান অ্যারেনায় সে ম্যাচে ব্রাজিলকে ২-১ গোলে পরাজিত করে সেমিফাইনালে জায়গা করে নেয় রেড ডেভিলরা। যেখানে তাদের প্রতিপক্ষ ফ্রান্স। দলের হয়ে গোল করেন ফার্নানদিনহো ও কেভিন ডু ব্রাইন। আগামী ১১ জুলাই সেমিফাইনালে তাদের প্রতিপক্ষ ১৯৯৮ সালের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স। সেন্ট পিটার্সবার্গ স্টেডিয়ামের ম্যাচটি বাংলাদেশ সময় রাত ১২টায় অনুষ্ঠিত হবে।
ইংল্যান্ড (থ্রি লায়ন্স)
গ্রুপ জি থেকে অংশ নেয়া দল ইংল্যান্ড। এ গ্রুপ থেকে সেমিফাইনালে অংশ নিচ্ছে দু’দল। আরেকটি দল হল বেলজিয়াম। বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে তিউনিসিয়ার বিরুদ্ধে ভলগোগ্রাদ স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হয় তারা। সেখানে তারা তিউনিসিয়াকে ২-১ গোলে পরাজিত করে। দলের হয়ে দু’টি গোলই করেন ইংলিশ অধিনায়ক হ্যারি কেন। দ্বিতীয় ম্যাচ নিঝনি নভরোগেদে পানামাকে ৬-১ গোলে উড়িয়ে দেয়। দলের হয়ে গোল করে জন স্টোনস, হ্যারি কেন ও জেসে লিঙ্গার্ড। তৃতীয় ম্যাচে কালিনিনগ্রাদে বেলজিয়ামের কাছে ১-০ গোলে পরাজিত হয়।
গ্রুপ জি থেকে রানার্সআপ হয়ে নক আউট নিশ্চিত করে ইংল্যান্ড। নক আউট পর্বে তাদের প্রতিপক্ষ ছিল গ্রুপ এইচ’র চ্যাম্পিয়ন কলম্বিয়া। স্পার্তাক মস্কো স্টেডিয়ামের সে ম্যাচে কলম্বিয়ার সঙ্গে ফুলটাইম ও অতিরিক্ত সময়ে ১-১ গোলে (দলের হয়ে গোল করেন হ্যারি কেন) সমতা থাকায় খেলা টাইব্রেকারে গড়ায়। সেখানে কলম্বিয়াকে ৪-৩ গোলে পরাজিত করে কোয়ার্টারে স্থান করে নেয়। যেখানে তাদের প্রতিপক্ষ ছিল সুইডেন। সামারা অ্যারেনায় কোয়ার্টার ফাইনালে সুইডেনকে ২-০ গোলে পরাজিত করে সেমিফাইনালে জায়গা করে নেয় ইংলিশরা। দলের হয়ে গোল করেন মাগুইরি ও ডেলে আলি। আগামী ১০ জুলাই সেমিফাইনালে তাদের প্রতিপক্ষ ১৯৯৮ সালের সেমিফাইনালিস্ট ক্রোয়েশিয়া। মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামের ম্যাচটি বাংলাদেশ সময় রাত ১২টায় অনুষ্ঠিত হবে

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিয়ে করলেন নাবিলা

২৭ এপ্রিল ২০১৮

ফেইজবুকে আমরা

  • পুরনো সংখ্যা

    SatSunMonTueWedThuFri
    21222324252627
    28293031   
           
          1
    9101112131415
    30      
         12
           
          1
    2345678
    30      
       1234
    262728293031 
           
         12
           
      12345
    2728293031  
           
    891011121314
    2930     
           
        123
           
        123
    25262728   
           
    28293031   
           
          1
    2345678
    9101112131415
    3031     
          1
    30      
      12345
    272829    
           
        123
           
    28