সারা দেশে অজ্ঞাত তিন জনের লাশ উদ্ধার

ঈদুল ফিতরের দুই দিন পর সারা দেশে অজ্ঞান তিনজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বরিশালের উজিরপুর, সুনামগঞ্জের তাহিরপুর ও পাবনার ভাঙ্গুড়ায় অজ্ঞাত তিনজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এখনো নিহতদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি। ধারণা করা হচ্ছে এদের প্রত্যেকেই হত্যাকান্ডের শিকার। বরিশাল থেকে আমাদের স্টাফ রিপোর্টার জানান, বরিশালের উজিরপুরের বামরাইল ইউনিয়নের মুগাকাঠি গ্রামের একটি পুকুর থেকে অজ্ঞাতনামা যুবকের (৩৫) অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল শুক্রবার বিকেল ৫টার দিকে উপজেলার ওই গ্রামের ভরতের পাড় এলাকার একটি পুকুর থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, উদ্ধার করা লাশটি অর্ধগলিত হওয়ায় চেহারা বিকৃত হয়ে গেছে। তাই চেনা যাচ্ছে না।

লাশ উদ্ধারকারী পুলিশ কর্মকর্তা উজিরপুর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এস আই) মো. জসিম উদ্দিন জানিয়েছেন, বিকেলে ওই এলাকার লোকজন পুকুরে লাশটি ভাসতে দেখে থানায় খবর দিলে লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বরিশাল শেরে-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পরিচয় জানতে অনুসন্ধান চলছে। তাছাড়া লাশটি কার এবং কিভাবে এখানে আসলো সে বিষয়ে তদন্ত অব্যাহত রয়েছে। এদিকে সুনামগহঞ্জের তাহিরপুর সীমান্তে এক অজ্ঞাত ব্যাক্তির লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। আমাদের তাহিরপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি জানান, তাহিরপুর সীমান্তের পাহাড়ী চড়া থেকে ভাসমান অবস্থায় অজ্ঞাত এক ব্যাক্তির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

তাৎক্ষনিক অজ্ঞাত ব্যাক্তির পরিচয় পাওয়া যায়নি। তার বয়স হবে আনুমানিক (৪৫)। শনিবার সকাল ৮টার দিকে তাহিরপুর উপজেলার শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়নের বিরেন্দ্রনগর সীমান্তের রঙ্গাচড়া এলসি পয়েন্টের পাহাড়ী চড়া থেকে এই অজ্ঞাত ব্যাক্তির লাশ উদ্ধার করা হয়। স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শনিবার সকালে সুনামগঞ্জ-২৮ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধীনস্থ বিরেন্দ্রনগর বিওপির একটি টহলদল নিয়মিত টহল দেয়ার সময় রঙ্গাচড়া এলাকায় ভাসমান অবস্থায় এক ব্যাক্তির লাশ দেখতে পায়। লাশ দেখতে পেয়ে বিরেন্দ্র নগর বিজিবির টহল দল তাহিরপুর থানায় বিষয়টি জানালে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে সকাল ১১টার দিকে তার লাশ উদ্ধার করে। তাহিরপুর থানার এস আই গোলাম মোস্তফা লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে অজ্ঞাত ব্যাক্তির মরদেহটি ভারতীয় নাগরিক হবে। লাশ উদ্ধারের সময় তার পকেটে ভারতীয় ৫০ রুপি, অর্ধেকটা অফিসার চয়েস মদের বোতল ও একটি ব্যাগ পাওয়া গেছে। লাশ উদ্ধারের পর সুনামগঞ্জ মর্গে পাঠানো হয়েছে। সুনামগঞ্জ-২৮ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্ণেল মাকসুদুল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, সীমান্তবর্তী পাহাড়ী চড়ায় অজ্ঞাত লাশের পরিচয় সনাক্ত করা যায়নি।

বিষয়টি ভারতীয় বিএসএফকে জানানো হয়েছে। এদিকে, পাবনার ভাঙ্গুড়ায়ও এক অজ্ঞাত যুবকের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ভাঙ্গুড়া (পাবনা) প্রতিনিধি জানান, পাবনার ভাঙ্গুড়া পৌর এলাকার সরদার পাড়া গ্রামের বড়াল নদীতে অজ্ঞাতনামা এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। শনিবার সকাল আটটার দিকে ভাসমান অবস্থায় জিন্সের প্যান্ট ও নেভী ব্লু প্রিন্টের শার্ট পরনের ওই লাশ উদ্ধার করা হয়। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শনিবার সকালে এলাকাবাসী সরদার পাড়া এলাকায় বড়াল নদীতে একটি মৃতদেহ ভাসতে দেখে ভাঙ্গুড়া থানা পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। এ ঘটনায় থানায় কোনো মামলা দায়ের হবে কিনা জানতে চাইলে ভাঙ্গুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাসুদ রানা জানান, বিষয়টি নিয়ে পুলিশ সুপারের সাথে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.