1. ccadminrafi@gmail.com : Writer Admin : Writer Admin
  2. 123junayedahmed@gmail.com : জুনায়েদ আহমেদ, সম্পাদনায়-আরজে সাইমুর : জুনায়েদ আহমেদ, সম্পাদনায়-আরজে সাইমুর
  3. swadesh.tv24@gmail.com : Newsdesk ,স্বদেশ নিউজ২৪.কম : Newsdesk ,স্বদেশ নিউজ২৪.কম
  4. swadeshnews24@gmail.com : নিউজ ডেস্ক, স্বদেশ নিউজ২৪.কম, সম্পাদনায়-আরজে সাইমুর: : নিউজ ডেস্ক, স্বদেশ নিউজ২৪.কম, সম্পাদনায়-আরজে সাইমুর:
  5. hamim_ovi@gmail.com : Rj Rafi, সম্পাদনায়- সাইমুর রহমান : Rj Rafi, সম্পাদনায়- সাইমুর রহমান
  6. skhshadi@gmail.com : শেখ সাদি, সম্পাদনায়-সাইমুর রহমান: : শেখ সাদি, সম্পাদনায়-সাইমুর রহমান:
  7. srahmanbd@gmail.com : এডমিন, সম্পাদনায়- সাইমুর রহমান : এডমিন, সম্পাদনায়- সাইমুর রহমান
  8. sumaiyaislamtisha19@gmail.com : তিশা, সম্পাদনায়-সাইমুর রহমান : তিশা, সম্পাদনায়-সাইমুর রহমান
মেঘনায় লঞ্চডুবি : লাশ উদ্ধার ৫৫টি, জীবিত উদ্ধার ৫০, বাকি ২৬০ জন যাত্রীর দেখা মিলছে না - Swadeshnews24.com
শিরোনাম
প্যানেল সাজাচ্ছেন মিশা-ডিপজল, যা বললেন জায়েদ পালসার রাইডারস ক্লাবের এক বছর পূর্তি অনুষ্ঠান উদযাপিত সাঘাটায় এইচবিবি রাস্তার উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন শুভশ্রীকে লিপকিস করায় কটাক্ষ, যা বললেন রাজ বিজয় না হওয়া পর্যন্ত চলমান আন্দোলন চলবে: মির্জা ফখরুল ভালবাসা দিবসে নার্গিস আলমগীরের কথা ও সুরে নতুন গান ‘একটি ডালে দুটি ফুল’ শাকিবের মতো হার্টথ্রব যুগে যুগে একজন আসে: অপু ষড়যন্ত্র কিন্তু এখনো আছে: প্রধানমন্ত্রী আজ জামিন পেলে মুক্তিতে বাধা থাকবে না ফখরুল- খসরুর পিএমসির মাধ্যমে লেজার সেবা আরও সহজলভ্য হলো – রুকাইয়া চমক হঠাৎ গভীর রাতে মুশতাক-তিশার বাঁচার আকুতি কীভাবে অ্যাকাউন্ট হ্যাকড হলো, ডিবি থেকে বের হয়ে জানালেন দীঘি শিল্পীদের কামব্যাক বলতে কিছু নেই: শাবনূর বিএনপির ৬ দিনের নতুন কর্মসূচি ঘোষণা মা-বাবাকে আর বৃদ্ধাশ্রমে দিতে হবে না: সমাজকল্যাণ মন্ত্রী

মেঘনায় লঞ্চডুবি : লাশ উদ্ধার ৫৫টি, জীবিত উদ্ধার ৫০, বাকি ২৬০ জন যাত্রীর দেখা মিলছে না

  • Update Time : রবিবার, ১৮ মে, ২০১৪
  • ২৫৬ Time View

gsdগত বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে গজারিয়া উপজেলার দৌলতদিয়ায় নদীতে ডুবে যায় এমভি মিরাজ-৪ নামের লঞ্চটি। দুর্ঘটনার ৩৬ ঘণ্টা পর শনিবার ভোর ৪টার দিকে লঞ্চটি উদ্ধার করা হয়। সকাল ৮টা ৩৫ মিনিটে উদ্ধার অভিযানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন বি আইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান ড. শামসুদ্দোহা খন্দকার। কিন্তু এর পর সন্ধ্যা পর্যন্ত আরো ৮টি লাশ উদ্ধার করা হয়। সে হিসাবে, এ পর্যন্ত ৫৫টি লাশ উদ্ধার করা হয়েছে আর ৫০ জনের মতো জীবিত উদ্ধার হয়েছে। কিন্তু এখনো ২৬০ জন আরোহীর কোনো খোঁজ নেই। প্রশাসনের কাছেও তাদের ব্যাপারে কোনো তথ্য নেই। উদ্ধারকৃত লঞ্চটিতে প্রাপ্ত লগবই থেকে জানা যায় সেই যাত্রীবাহী লঞ্চটিতে মোট আরোহী ছিল ৩৬৫ জন যার ধারণক্ষমতা ছিল মোট ২০২ জন যাত্রী। এর মধ্যে ৩৩০ জন সাধারণ যাত্রী, কেবিনে ২১ জন আর শুকানিসহ স্টাফ মিলে ছিলেন ১৪ জন।
ঢাকা থেকে যাওয়া একটি পর্যবেক্ষক দল সন্ধ্যা ৭টার দিকে ওই লগবই উদ্ধার করে গজারিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ড. এটিএম মাহবুবুল হকের কাছে হস্তান্তর করে। ইউএনএও লগবইটির প্রাপ্তি স্বীকার করে বলেন, ‘ঢাকা থেকে আসা পর্যবেক্ষকদের একটি দল লঞ্চের লগবই উদ্ধার করে আমার কাছে জমা দিয়েছে। সেখানের হিসাব অনুযায়ী যাত্রীর সংখ্যা ৩৬৫ জন।’ লগবই উদ্ধার করার দলে ছিলেন প্রকৌশলী কল্লোল মোস্তফা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের সগযোগী অধ্যাপক মোশাইদা সুলতানা, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের কর্মী কাঁকন বিশ্বাস ও হিমালয় হিমু।
তিনি আরো জানান, প্রশাসন থেকে স্বজনদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছিল। সে হিসাবে ৫৫ জনের লাশ উদ্ধার করে তাদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ওই তালিকা অনুযায়ীই এখনো নিখোঁজ ৬ জন। তবে যারা সাঁতরে তীরে উঠেছেন তাদের হিসাব রাখা হয়নি। আর জীবিত উদ্ধারের কোনো তালিকাও নেই। নিখোঁজের কোনো তথ্য পেলে সাংবাদিকদের জানাতে বলেন। এবং জানান যে, তাদের উদ্ধার অভিযান এখনো অব্যাহত আছে।
এদিকে লাশের সন্ধানে মেঘনাতীরে এখনো চলছে স্বজনদের বুকফাটা আহজারি। এ অবস্থায় উদ্ধারকাজ সমাপ্ত ঘোষণা করায় বি আইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যানের ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে সাধারণ মানুষ। তবে স্থানীয় সাংসদ ঘোষণা দিয়েছেন, উদ্ধারকাজ চলবে।
প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, দুর্ঘটনার সময় পেছনে থাকা অন্য একটি লঞ্চ থেকে বয়া ও লাইফ জ্যাকেট নদীতে ফেলা হলে সেগুলোর সহায়তায় ৫০ জনের মতো যাত্রী তীরে উঠতে সক্ষম হন।
শনিবার দুপুরে উদ্ধারকারী জাহাজ ‘প্রত্যয়’ এ আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তখন পর্যন্ত উদ্ধারকৃত লাশের সংখ্যা ৫৪টি বলে জানানো হয়। তবে তখন মাত্র ১২ জন নিখোঁজের কথা উল্লেখ করা হয়। এসময় স্থানীয় সাংসদ মৃণাল কান্তি দাশ, বি আইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান শামছুদ্দোহা খন্দকার, জেলা প্রশাসক মো. সাইদুল হাসান, জেলার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার জাকির হোসেন মজুমদার উপস্থিত ছিলেন।
গজারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি- তদন্ত) আবু বকর সিদ্দিক জানান, ভোরে উদ্ধারকারী জাহাজ প্রত্যয় ক্রেনের সাহায্যে ডুবে যওয়া লঞ্চটিকে মেঘনা পাড়ে দৌলতপুর চরে তুলে আনে। এরপর সকাল ৮টা ৩৫ মিনিটে বি আইডব্লিউটিএ চেয়ারম্যান উদ্ধারকাজ সমাপ্ত ঘোষণা করলে বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে নিখোঁজদের স্বজনরা।
প্রকৌশলী কল্লোল মোস্তফা বলেন, ‘লগবই অনুযায়ী আমরা জানি লঞ্চ ছাড়ার সময় তাতে ৩৬৫ জন যাত্রী ছিল। দুর্ঘটনার পর মৃত উদ্ধার করা হয়েছে ৫৫ জন এবং জীবিত উদ্ধার হয়েছেন ৫০ জন। এই ১০৫ জনের বাইরে যে বাকি ২৬০ জন, তাদের কী হলো? আমরা এই অচিহ্নিত অংশের হিসাব চাই।’ তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘এই জাহাজ এখানে এসেছিল পরীক্ষামূলক কাজে। তাদের এটা ছিল প্রথম উদ্ধার অভিযান যে কারণে উদ্ধারে দেরি হয়েছে।’ এমভি মিরাজকে যারা নৌপথে চলাচলের অনুমতি দিয়েছে তিনি তাদের শাস্তিও দাবি করেন। ‘প্রশাসনকে আগে এই অচিহ্নিত ২৬০ জনের হিসাব দিতে হবে। এই বিশাল অংশের কী হয়েছে আমরা তা জানতে চাই। আর উদ্ধার করতে কেন দুই দিন লাগল সেটাও জানাতে হবে। এখানে কেন এরকম একটি পরীক্ষামূলক উদ্ধারকাজ চালানো হলো?’
এ ব্যাপারে বি আইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান ড. মো: শামছুদ্দোহা খন্দকারের সঙ্গে টেলিফোনে বারবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category
© All rights reserved © 2020 SwadeshNews24
Site Customized By NewsTech.Com