1. ccadminrafi@gmail.com : Writer Admin : Writer Admin
  2. 123junayedahmed@gmail.com : জুনায়েদ আহমেদ, সম্পাদনায়-আরজে সাইমুর : জুনায়েদ আহমেদ, সম্পাদনায়-আরজে সাইমুর
  3. swadesh.tv24@gmail.com : Newsdesk ,স্বদেশ নিউজ২৪.কম : Newsdesk ,স্বদেশ নিউজ২৪.কম
  4. swadeshnews24@gmail.com : নিউজ ডেস্ক, স্বদেশ নিউজ২৪.কম, সম্পাদনায়-আরজে সাইমুর: : নিউজ ডেস্ক, স্বদেশ নিউজ২৪.কম, সম্পাদনায়-আরজে সাইমুর:
  5. hamim_ovi@gmail.com : Rj Rafi, সম্পাদনায়- সাইমুর রহমান : Rj Rafi, সম্পাদনায়- সাইমুর রহমান
  6. rifatkabir582@gmail.com : রিফাত কবির, সম্পাদনায়-সাইমুর রহমান : রিফাত কবির, সম্পাদনায়-সাইমুর রহমান
  7. skhshadi@gmail.com : শেখ সাদি, সম্পাদনায়-সাইমুর রহমান: : শেখ সাদি, সম্পাদনায়-সাইমুর রহমান:
  8. srahmanbd@gmail.com : এডমিন, সম্পাদনায়- সাইমুর রহমান : এডমিন, সম্পাদনায়- সাইমুর রহমান
স্বতন্ত্র সংস্থার মাধ্যমে আমিনুল হত্যার তদন্ত চায় যুক্তরাষ্ট্র - Swadeshnews24.com
শিরোনাম
রোজা আফরোজার ডিজাইনে লোরাটো’র জাঁক-জমক ফ্যাশন শো অনুষ্ঠিত ওয়াকারের বিরুদ্ধে নতুন অভিযোগ ঈদে মিলন মাহমুদের ‘মনের মানুষ’ মূল্যস্ফীতি সামাল দিতে সংকোচনমুখী মুদ্রানীতি সৌদি পৌঁছেছেন প্রায় ৫৭ হাজার হজযাত্রী, ১২ জনের মৃত্যু বাংলাদেশকে আরও ৩৮ লাখ ডোজ টিকা দিল যুক্তরাষ্ট্র পদ্মা সেতু পার হয়ে টুঙ্গিপাড়া গেলেন প্রধানমন্ত্রী শ্রীলঙ্কায় আবারও এক সপ্তাহের জন্য স্কুল বন্ধ ঈদে আসছে ইমরানের ‘ঘুম ঘুম চোখে’ হ্যাকারদের কবলে ব্রিটিশ সেনাবাহিনীর ইউটিউব ও টুইটার অ্যাকাউন্ট টোল দিয়ে পদ্মা সেতুতে উঠলেন প্রধানমন্ত্রী, গাড়ি থামিয়ে উপভোগ করলেন সৌন্দর্য বাসের টিকিট শেষ, রেলে দীর্ঘ সারি যাদের ওপর কোরবানি ওয়াজিব ক্ষমতা, সম্মান ও পরাক্রম কেবল আল্লাহর জন্য ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ছাড়তে চাই, সরাসরি জানালেন রোনালদো

স্বতন্ত্র সংস্থার মাধ্যমে আমিনুল হত্যার তদন্ত চায় যুক্তরাষ্ট্র

  • Update Time : শুক্রবার, ২৩ মে, ২০১৪
  • ১৬৭ Time View

1_7529শ্রমিক নেতা আমিনুল হত্যা রহস্য উদঘাটনে অধিকতর তদন্তের জন্য একটি স্বাধীন ও স্বতন্ত্র সংস্থাকে নিয়োগ দেওয়ার সুপারিশ জানিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির ক্ষমতাসীন দল ডেমোক্রেটের দুই শীর্ষ নেতা লেভিন ও মিলার সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে চিঠি পাঠিয়ে এ ধরনের সুপারিশ করেন।

চিঠিতে দুই ডেমোক্রেট বলেন, প্রায় দুই বছর আগে বাংলাদেশ গার্মেন্ট অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফেডারেশনের একজন সক্রিয় শ্রমিক নেতা আমিনুল ইসলামকে খুন করা হয়। শ্রম পরিবেশ উন্নয়নে যুক্তরাষ্ট্র যে অ্যাকশন প্ল্যান দিয়েছে সেখানে এ হত্যার ব্যাপারে সরকারের স্বচ্ছ তদন্ত নিশ্চিত করার কথা বলা হয়েছে। সরকার এ ব্যাপারে যে ধরনের বিচারিক প্রক্রিয়া গ্রহণ করেছে সেটি সন্তোষজনক নয়। আমরা চাই, শ্রমিক নেতা আমিনুল হত্যার অধিকতর তদন্তের স্বার্থে একটি স্বাধীন ও স্বতন্ত্র সংস্থাকে নিয়োগ করা হোক। যাতে করে ওই তদন্তকারী সংস্থাটি হত্যার ক্ষেত্রে কারা বা কোন বিষয়গুলো জড়িত থাকতে পারে সেসব বিষয় স্বাধীনভাবে খতিয়ে দেখতে পারে। চিঠিতে পোশাক খাতের আরও চার ইস্যুতে উদ্বেগ তুলে ধরে সেসব ব্যাপারে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণেরও সুপারিশ জানানো হয়। এর মধ্যে রয়েছে শ্রমিক ইউনিয়ন নিবন্ধন এবং তার রক্ষণ, শ্রম আইন পুনঃসংশোধন, ইপিজেড আইন আন্তর্জাতিকমানে উন্নীত করা এবং কারখানা তথ্য সংবলিত ডাটাবেজ তৈরি করা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ করে গত মাসের শেষ সপ্তাহে এই চিঠিটি লিখেন ক্ষমতাসীন ডেমোক্রেটের ‘কমিটি অন ওয়েস অ্যান্ড মিনস’-এর সদস্য সেন্ডি লেভিন এবং এডুকেশন অ্যান্ড ওয়ার্কফোর্স কমিটির সদস্য জর্জ মিলার। চিঠিতে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্র যে অ্যাকশন প্ল্যান দিয়েছে সে অনুযায়ী বাংলাদেশ সরকার কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রে অগ্রগতি খুব সামান্যই। বিশেষ করে স্বাধীনভাবে শ্রমিক ইউনিয়ন করার ক্ষেত্রে শ্রমিকরা এখনো বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।

এতে আরও বলা হয়, শ্রম পরিবেশ উন্নয়নে বাংলাদেশ একটি সন্ধিক্ষণ পার করছে। এর মধ্য দিয়েই পোশাক কারখানায় নতুন নতুন শ্রমিক ইউনিয়ন নিবন্ধিত হচ্ছে। তবে সামনের দিনগুলোতে যে বিষয়টি নিশ্চিত করা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ, সেটি হচ্ছে- নতুন শ্রমিক ইউনিয়নগুলো থেকে বাংলাদেশের শ্রমিকরা প্রকৃতভাবেই লাভবান হচ্ছে।

শ্রমিক ইউনিয়ন নিবন্ধন এবং তার রক্ষণ : এ ব্যাপারে উদ্বেগ প্রকাশ করে চিঠিতে বলা হয়েছে, পোশাক কারখানায় ১৩১টি নতুন ইউনিয়ন করার খবর আমাদের কাছে এসেছে। তবে একই সঙ্গে আরও কিছু খবর রয়েছে যেগুলো উদ্বেগজনক। বিশেষ করে এসব ইউনিয়নের সঙ্গে যুক্ত শ্রমিক হুমকি, নির্যাতন এবং কোনো কোনো ক্ষেত্রে গুরুতর সহিংস আচরণের শিকার হচ্ছে। দুটি কারখানার নাম উল্লেখ করে এবং শ্রমিকদের ওপর সহিংস আচরণের বর্ণনা দিয়ে চিঠিতে বলা হয়, সরকারকে কেবল ইউনিয়ন নিবন্ধনের দিকে মনযোগী হলেই চলবে না, সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের সঙ্গে যুক্ত শ্রমিকের নিরাপত্তা রক্ষার দায়িত্বও নিতে হবে।

শ্রম আইন পুনঃসংশোধন : এ সম্পর্কে চিঠিতে বলা হয়, গত বছরের জুলাইয়ে বাংলাদেশের সংসদ শ্রম আইন সংশোধন করেছে বলে আমাদের জানানো হয়েছে। তবে এর কয়েকটি ধারার বাস্তবায়ন নিয়ে আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার (আইএলও) উদ্বেগও আমাদের চোখে পড়েছে। বিশেষ করে শ্রম আইন সংশোধনের পরও শ্রমিকদের স্বাধীনভাবে ইউনিয়ন করা, এ জন্য দরকষাকষি করা এবং ধর্মঘটে যাওয়ার স্বাধীনতা সীমিতই রয়ে গেছে।

ইপিজেড আইন : বাংলাদেশে ইপিজেডে প্রচলিত আইন আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন নয় এমন অভিযোগ করে চিঠিতে বলা হয়েছে_ আমরা জেনেছি, বাংলাদেশ সরকার ইপিজেড আইনের একটি খসড়া তৈরি করেছে। তবে খসড়াটি আইনে রূপান্তরের জন্য সংসদে পাঠানোর আগে অবশ্যই এর ধারাগুলো নিয়ে শ্রমিক সংগঠন, আইএলও, পাঁচ রাষ্ট্রদূত (যুক্তরাষ্ট্র, ইইউ, কানাডা, ইউকে এবং নেদারল্যান্ডস)-এর সঙ্গে আলোচনা করা উচিত।

রিপোর্টিং ডাটাবেজ : এ সম্পর্কে বলা হয়, সরকার যদিও একটি ডাটাবেজ তৈরি করেছে তবে সেটি আমাদের দেওয়া অ্যাকশন প্ল্যানের নির্দেশনা অনুযায়ী হয়নি। সেখানে এখনো কোনো কারখানা পরিদর্শনের তথ্য সংযুক্ত হচ্ছে না। এমনকি সুনির্দিষ্ট কারখানার বিরুদ্ধে শ্রমিকদের অভিযোগের বিষয়গুলোও আসছে না। আমরা স্পষ্টভাবে এসব বিষয় ডাটাবেজে সংযুক্ত দেখতে চাই, যাতে করে জনগণ এসব ব্যাপারে ওয়াকিবহাল হতে পারে।

 

প্রসঙ্গত, ট্রেড ইউনিয়ন করার দায়ে গত ফেব্রুয়ারিতে দুটি কারখানায় কর্মরত শ্রমিকদের নির্দয়ভাবে পেটানো, ধর্ষণের হুমকি ও চাকরিচ্যুত করার সুস্পষ্ট অভিযোগ তুলে ধরে ইউএসটিআর-এর অ্যাম্বাসেডর মাইকেল ফ্রোম্যানের কাছে চিঠি পাঠায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী শ্রমিক সংগঠন আমেরিকান ফেডারেশন অব লেবার অ্যান্ড কংগ্রেস অব ইন্ডাস্ট্রিয়াল অর্গানাইজেশন (এএফএল-সিআইও)। শ্রম পরিবেশ উন্নয়নে বাংলাদেশ সরকারের কার্যক্রম সন্তোষজনক নয় বলে চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছিল। বা প্র

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
© All rights reserved © 2020 SwadeshNews24
Site Customized By NewsTech.Com