শিরোনাম

তাহসানের সঙ্গে যোগাযোগ হয় মিথিলার

| ১১ জুন ২০১৯ | ৪:১০ অপরাহ্ণ

তাহসানের সঙ্গে যোগাযোগ হয় মিথিলার

অনেক দিন পর নতুন গান গেয়েছেন অর্ণব। গানটির শিরোনাম ‘কী হলে কী হতো’। লিখেছেন, সুর ও সংগীত পরিচালনা করেছেন প্রদ্যুৎ চট্টোপাধ্যায়। ধ্রুব মিউজিক স্টেশনের ইউটিউব চ্যানেলে ৪ জুন গানটির ভিডিওচিত্র প্রকাশ করা হয়। তাতে অভিনয় করেছেন অর্ণব, মিথিলা, সৃজিত মুখোপাধ্যায়, ইন্দ্রাশীষ রায় ও অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়। গানটির ভিডিওচিত্র পরিচালনা করেছেন একলব্য চৌধুরী। আজ মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত তা দেখা হয়েছে ১ লাখ ৬৬ হাজার ৭৬৪ বার। আজ সকালে বিভিন্ন প্রসঙ্গ নিয়ে কথা হয়েছে মিথিলার সঙ্গে।

এবার ঈদে আপনাকে কোনো নাটকে দেখা যায়নি।
ঠিকই বলেছেন। ঈদের আগে দুবার অফিসের কাজে আফ্রিকায় যেতে হয়েছে। তাই ঈদের জন্য কোনো কাজ করতে পারিনি।

তবে ঈদের আগের দিন অর্ণবের নতুন গানের ভিডিওচিত্র এসেছে। তাতে আপনি অভিনয় করেছেন।
দারুণ একটা কাজ হয়েছে। অর্ণব ভাই অনেক দিন পর গান গেয়েছেন। তাই আমি আর তাঁর বন্ধুরা চেয়েছি, তাঁর এই কাজটা যেন অন্য রকম হয়। তখন মোশন রক এন্টারটেইনমেন্ট আর ধ্রুব মিউজিক স্টেশনের সঙ্গে কথা হলো। ভারতের এ সময়ের জনপ্রিয় চলচ্চিত্র নির্মাতা সৃজিত যখন জানতে পেরেছে, তখন সেও প্রযোজনার ব্যাপারে আগ্রহী হয়। তার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ম্যাচকাট প্রোডাকশনস প্রাইভেট লিমিটেডের সঙ্গে যুক্ত হলো। আমিও বললাম, এখানে আমি অভিনয় করব। এখানে আমি নির্বাহী প্রযোজকের মতো কাজ করেছি। সর্বশেষ মিউজিক ভিডিওতে কাজ করেছি ২০১৭ সালে, হাবিবের সঙ্গে ওর গান ‘ঘুম’-এর ভিডিওতে।

অর্ণবের মিউজিক ভিডিওতে সৃজিত মুখোপাধ্যায় অভিনয় করেছেন।
চলচ্চিত্রে সৃজিত আগেও অভিনয় করেছে। তবে মিউজিক ভিডিওতে এবারই প্রথম। গল্পের প্রয়োজনেই ও যুক্ত হয়েছে। আসলে অর্ণব গান গেয়েছেন, ওই দিক থেকে সবার এত আগ্রহ। সবাই আমরা ভালো বন্ধু।

কাজটা করতে গিয়ে কেমন লেগেছিল?
সবাই তো বন্ধু। তাই খুব আড্ডা হতো, গান হতো। মজা করতে করতে কাজটা হয়ে গেছে।

মার্চ মাসের মাঝামাঝি কলকাতার কয়েকটি পত্রিকা থেকে জানা গেছে, কলকাতায় সৃজিতের সঙ্গে আপনি প্রেম করছেন, ঘুরে বেড়াচ্ছেন। সৃজিত মুখোপাধ্যায় তখন প্রথম আলোকে বলেন, ‘টাইমস অব ইন্ডিয়াতে আমিও খবরটা পড়েছি। একটা জল্পনা চলছে, এটুকুই।’
ও ঠিকই বলেছে। খবরটা পুরোটাই গসিপ। মিউজিক ভিডিওর শুটিং শেষে সৃজিত আমাকে কলকাতার একটা পার্টিতে নিয়ে যায়। বন্ধুদের সঙ্গে একটু হাই-হ্যালো বলা আরকি। আমার মনে হয়, ওখানে সৃজিত কাকে নিয়ে পার্টিতে গেল, এই মেয়েটা কে—এ কারণেই হয়তো গুঞ্জন ছড়িয়েছে। ওখানে একটা ব্যাপার দেখলাম, পত্রিকাগুলো গসিপকে খুব গুরুত্ব দেয়। আমাদের এখানে তেমনটা হয় না।

সৃজিতের সঙ্গে আপনার পরিচয় কবে থেকে?
অনেক আগে থেকে সৃজিতের সঙ্গে আমার পরিচয়। এর আগেও আমাদের দেখা হয়েছে, কথা হয়েছে। আমাদের দুজনের কয়েকজন কমন বন্ধু আছে।

এই মিউজিক ভিডিওতে আরও অভিনয় করেছেন অনিন্দ্য ও ইন্দ্রাশীষ রায়।
ওরা দুজনই কলকাতার টিভি ও চলচ্চিত্রে খুব পরিচিত মুখ। দুজনই জনপ্রিয়।

অর্ণব আপনার কাজিন। অর্ণব আপনাকে কখনো প্রভাবিত করেছেন?
তিনি আমার ফুফাতো ভাই। আমার গান শেখা, ছবি আঁকা ও গিটার শেখার যাবতীয় উৎসাহ অর্ণব ভাইয়ের কাছ থেকে। তিনি আমাকে খুব প্রভাবিত করতেন। আমরা তো প্রায় একই সঙ্গে বেড়ে উঠেছি। শান্তিনিকেতন থেকে যখন ছুটিতে ঢাকায় আসতেন, তখন আমরা একসঙ্গে গান গাইতাম, ছবি আঁকতাম। অর্ণব ভাইয়াও এসবে খুব উৎসাহ দিতেন।

তাহসানের সঙ্গে আপনার যোগাযোগ হয়?
হ্যাঁ। তাহসানের সঙ্গে যোগাযোগ হয়, কথা হয়। ও আমার বাসায় আসে। আমাদের বিবাহবিচ্ছেদ হয়েছে ২০১৭ সালে। ২০ জুলাই আমি আর তাহসান যৌথভাবে সেই ঘোষণা দিয়েছি। আমাদের একমাত্র সন্তান আইরা তেহরীম খান। ও আমার কাছেই থাকে। ওর সঙ্গে দেখা করতে তাহসান আসে। আজ বিকেলে আইরাকে নিয়ে ও মুভি দেখতে যাবে। আইরার ব্যাপারে আমরা আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নিই। মেয়ের জন্য যতটুকু দরকার, ঠিক ততটুকুই।

আপনাদের এই যোগাযোগ দেখে জানতে ইচ্ছে করছে, সামনে আবার আপনাদের একসঙ্গে দেখা যাবে?
তা কখনো হবে না। আমাদের মধ্যে এখন যে যোগাযোগ হয়, তা শুধুই আইরার জন্য।

আবার কবে বিয়ে করবেন?
এখন ওসব নিয়ে ভাবছি না।

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিয়ে করলেন নাবিলা

২৭ এপ্রিল ২০১৮

ফেইজবুকে আমরা

  • পুরনো সংখ্যা

    SatSunMonTueWedThuFri
    22232425262728
    2930     
           
      12345
    27282930   
           
          1
           
          1
    9101112131415
    30      
         12
           
          1
    2345678
    30      
       1234
    262728293031 
           
         12
           
      12345
    2728293031  
           
    891011121314
    2930     
           
        123
           
        123
    25262728   
           
    28293031   
           
          1
    2345678
    9101112131415
    3031     
          1
    30      
      12345
    272829    
           
        123
           
    28