1. ccadminrafi@gmail.com : Writer Admin : Writer Admin
  2. 123junayedahmed@gmail.com : জুনায়েদ আহমেদ, সম্পাদনায়-আরজে সাইমুর : জুনায়েদ আহমেদ, সম্পাদনায়-আরজে সাইমুর
  3. swadesh.tv24@gmail.com : Newsdesk ,স্বদেশ নিউজ২৪.কম : Newsdesk ,স্বদেশ নিউজ২৪.কম
  4. swadeshnews24@gmail.com : নিউজ ডেস্ক, স্বদেশ নিউজ২৪.কম, সম্পাদনায়-আরজে সাইমুর: : নিউজ ডেস্ক, স্বদেশ নিউজ২৪.কম, সম্পাদনায়-আরজে সাইমুর:
  5. hamim_ovi@gmail.com : Rj Rafi, সম্পাদনায়- সাইমুর রহমান : Rj Rafi, সম্পাদনায়- সাইমুর রহমান
  6. rifatkabir582@gmail.com : রিফাত কবির, সম্পাদনায়-সাইমুর রহমান : রিফাত কবির, সম্পাদনায়-সাইমুর রহমান
  7. skhshadi@gmail.com : শেখ সাদি, সম্পাদনায়-সাইমুর রহমান: : শেখ সাদি, সম্পাদনায়-সাইমুর রহমান:
  8. srahmanbd@gmail.com : এডমিন, সম্পাদনায়- সাইমুর রহমান : এডমিন, সম্পাদনায়- সাইমুর রহমান
জয়পুরহাটে নদী দখল ও ভরাট করে ধান চাষ - Swadeshnews24.com
শিরোনাম
ডিবি কার্যালয়ে নেওয়া হয়েছে ফখরুল-আব্বাসকে ৫ নারীর হাতে ‘রোকেয়া পদক’ তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী বিএনপির সংবাদ সম্মেলন বিকাল ৩টায় পার্সন অব দ্যা ইয়ার সম্মাননা ২০২১ প্রদান সম্পন্ন ফ্ল্যাট থেকে প্রযোজকের লাশ উদ্ধার গোল্ডেন বুটের দৌড়ে এগিয়ে আছেন যারা টস জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ দণ্ডিত হাজি সেলিম জামিন পেলেন ৭০ ভাগ মানুষ চায় রোনাল্ডো না খেলুক! নেইমারের ব্রাজিলকেই ফেবারিট মানেন মেসি খেলতে নামার আগে জোড়া সুসংবাদ ব্রাজিলের ভেনিসে শামীম আহমেদ এর আগমন উপলক্ষে সংবর্ধনা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নাগরিক সচেতনতায়র্্যালী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত জনপ্রিয় টিকটকারের আকস্মিক মৃত্যু এবার জিৎ এর সিনেমা পরিচালনায় বাংলাদেশের সঞ্জয় সমাদ্দার

জয়পুরহাটে নদী দখল ও ভরাট করে ধান চাষ

  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১৫ মে, ২০১৪
  • ১৯২ Time View

joypurhat জয়পুরহাটের ছোট যমুনা নদীতে এখন আর পাল তোলা নৌকা, যাত্রী পারাপারের নৌকা কিংবা জেলেদের মাছ ধরতে দেখা যায় না। তবে অবৈধ দখলকারী, চাঁদাবাজ, বালু ও মাটি ব্যবসায়ীদের দেখা মিলে সব সময়। নদীর কোন এলাকায় অবৈধ দখলদাররা শত শত একর নদী দখল করে ধান চাষ, কোন এলাকায় অবিরাম তোলা হচ্ছে বালু, কোন এলাকায় কেটে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে নদীর পাড় আবার কোন এলাকায় অবৈধ এসব ব্যবসায়ীদের নিকট থেকে প্রতিদিন বিপুল অংকের চাঁদা আদায়কারী চাঁদাবাজদের জটলা দেখা যায়।

দেখা মিলে না গত কয়েক বছর পূর্বেও নদীর তীরে বসবাসরত শতাধিক মাঝি ও জেলে পরিবারের। জীবিকার তাগিয়ে কৃষি, ব্যবসা ও দিনমজুরসহ তারা এখন অন্য পেশায়। স্থানীয় একাধিক প্রভাবশালী মহলের এসব অবৈধ ব্যবসার সাথে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের বিশেষ সখ্যতা রয়েছে বলে জানা গেছে।

ছোট যমুনা নদীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, নদীর জয়পুরহাট সদর ও পাঁচবিবি উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় চলছে ভূমিদস্যু দখলদার, অবৈধ বালু ও মাটি ব্যবসায়ীদের মহোৎসব। সদর উপজেলার দোগাছী, দুর্গাদহ বাজার এলাকা, খঞ্জনপুর, কুঠিবাড়ী ব্রীজ এলাকা এবং পাঁচবিবি উপজেলার সর্বত্রই এ নদীতে এখন দখলের মহোৎসব চলছে। নদীর বুকে বিভিন্ন এলাকায় কয়েক শতাধিক একর নদী ভরাট করে চলছে ধান চাষ। গত কয়েক বছর ধরে পর্যায়ক্রমে ভরাটের ফলে ওইসব এলাকার নদী এখন ফসলি জমিতে পরিণত হয়েছে। আগামী দুয়েক বছরের মধ্যে নদী বুকের দখলকৃত ওইসব জমি ক্রয়-বিক্রয়ও শুরু হতে পারে। গত কয়েক বছর পূর্বেও এ নদীতে নৌকা বেয়ে ও মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করতো শতাধিক মাঝি ও জেলে পরিবার।

বর্ষাকালেও এখন আর ওইসব মাঝি ও জেলেদের দেখা মিলে না। নদীতে কোন প্রকার কাজ না থাকায় জীবন-জীবিকার তাগিদে তারা চলে গেছে অন্য পেশায়।

স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা গেছে, একাধিক প্রভাবশালী মহল সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের সাথে যোগসাজসে গোপন লেনদেনের প্রতি মাসে অবৈধ ভাবে উত্তোলন করছে কোটি টাকার বালু ও মাটি। কোন কোন এলাকা থেকে নদী তীরও কেটে ইটভাটায় সরবরাহ করা হচ্ছে। যত্রতত্র থেকে বালু উত্তোলন ও পাড় কাটার ফলে প্রতি বছর বর্ষা মৌসুমে ভেঙে যাচ্ছে বিভিন্ন এলাকার নদী পাড়। নদী গর্ভে বিলীন হচ্ছে ফসলি জমি। অবৈধ বালু ও মাটি ব্যবসায়ী এবং প্রভাবশালী মহলের ভয়ে ক্ষতিগ্রস্তরা কোন প্রকারের অভিযোগ করারও সাহস পায় না। কেউ অভিযোগ করলেও উল্টো তাকেই নানা রকমের পুলিশী হয়রানী করা হয়।

যেসব এলাকায় নদী ভরাট করে ফসলি জমির সৃষ্টি করা হয়েছে সেসব জমিতে চাষকৃত ধানের একটা বড় অংশ ওই প্রভাবশালী মহলকে দিতে হয়। সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের নাকের ডগার উপর দিয়ে প্রতিদিন বালু ও মাটি ব্যবসায়ীরা শত শত গাড়ী বালু ও মাটি নিয়ে গেলেও সেদিকে তাদের কোন খেয়ালই নেই। প্রতি মাকে অবৈধ বালু ও মাটি ব্যবসা থেকে আদায় হয় প্রায় কোটি টাকা। আদায়কৃত টাকা যায় ক্ষমতাসীন দলের স্থানীয় শতোধিক নেতা,বিভিন্ন চাঁদাবাজ , প্রভাবশালী মহলসহ সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের একটা অংশের পকেটে। মাঝে মাঝে আই ওয়াশের জন্য বালু ভর্তি দুয়েকটা মেসি-ট্রাক আটক করা হলেও রাতের বেলা বিশেষ ব্যবস্থায় থানা থেকে তা ছেড়ে দেওয়া হয়। অবৈধ বালু ও মাটি ব্যবসায়ীরা পাঁচবিবি উপজেলার কয়েকটি স্থানে ছোট যমুনা নদীর উপর নির্মিত ব্রীজের নীচে থেকেই অবিরাম বালু উত্তোলন করায় মারাত্মক হুমকীর মুখে পরেছে এ উপজেলার বৃহৎ ৩টি ব্রীজ। ওই ব্রীজগুলোর ভিত্তি প্রস্তর ধ্বসে গিয়ে যে কোন মুহূর্তে ঘটতে পারে মারাত্মক দুর্ঘটনা।

অবৈধ ভাবে অবিরাম বালু উত্তোলনের ফলে একদিকে প্রতিমাসে সরকার বিপুল অংকের রাজস্ব আয় থেকে বঞ্চিত হচ্ছে অপরদিকে বর্ষাকালে নদী পাড় ধ্বসে নদীতে বিলীন হচ্ছে এলাকার কৃষকের জমি। এছাড়া এভাবে দখল হতে থাকলে আগামী কয়েক বছরের মধ্যেই জেলার মানচিত্র থেকে মুছে যেতে পারে এক কালের খরস্রোতা এ নদী। যা এলাকার পরিবেশের জন্য মারাতœক হুমকীস্বরূপ। এসব বালু ও মাটি ব্যবসায়ীসহ অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে অবিলম্বে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি এলাবাসীর।

পাঁচবিবি থানার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা ( তদন্ত ) ফরিদ হোসেন বলেন, অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনকারী গাড়ী আটকে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

জয়পুরহাট-১ (সদর ও পাঁচবিবি) আসনের সংসদ সদস্য ও ভূমি মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য এ্যাড. সামছুল আলম দুদু বলেন, সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের অসহযোগীতায় ছোট যমুনা নদীর বিভিন্ন স্থানে গত কয়েক বছর ধরে অবৈধ বালু ও মাটি ব্যবসায়ীরা যত্রতত্র অবিরাম বালু উত্তোলন করাসহ নদী পাড় কাটায় নদীর উপর নির্মিত ব্রীজগুলো হুমকীর মুখে পরেছে। নদীপাড় হয়ে পরছে নীচু, যা বর্ষা মৌসুমে নদী তীরের কৃষকদের জমির ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি করবে।

নদী দখল ও ভরাট করে ধান চাষ করায় দখল হয়ে যাচ্ছে নদী ও পরিবর্তন হচ্ছে নদীর গতিপথও। তবে এসব অবৈধ বালু, মাটি ব্যবসায়ীসহ দখলদারদের বিরুদ্ধে অবিলম্বে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানাবেন বলেও জানান তিনি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2020 SwadeshNews24
Site Customized By NewsTech.Com