শিরোনাম

সবচেয়ে বেশি দিন ক্ষমতায় থাকা বিশ্ববিখ্যাত নেত্রীদের তালিকায় শেখ হাসিনা

| ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৩:০২ পূর্বাহ্ণ

সবচেয়ে বেশি দিন ক্ষমতায় থাকা বিশ্ববিখ্যাত নেত্রীদের তালিকায় শেখ হাসিনা

সবচেয়ে বেশি দিন ক্ষমতায় থাকা বিশ্ববিখ্যাত নেত্রীদের তালিকায় উঠে এসেছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নাম। ভারতের সংবাদ সংস্থা ইউনাইটেড নিউজ অব ইন্ডিয়ার বরাত দিয়ে এই তথ্য জানিয়েছে বাংলাদেশের এক ইংরেজি দৈনিক।

তিনি বিখ্যাত নারী সরকার প্রধান হিসেবে ভারতের ইন্দিরা গান্ধী, ব্রিটেনের মার্গারেট থ্যাচার এবং শ্রীলঙ্কার চন্দ্রিকা কুমারাতুঙ্গার রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছেন।

অনলাইনভিত্তিক অলাভজনক আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম উইকিলিকসের একটি সাম্প্রতিক জরিপে বলা হয়, শেখ হাসিনা এখন নারীদের পুনর্জাগরনের একজন আইকন। সেন্ট লুসিয়ার গভর্নর জেনারেল ডেম পিয়ারলেট সবচেয়ে বেশি দিন রাষ্ট্রপ্রধানের দায়িত্ব পালন করেছেন।

তিনি ১৯৯৭ সালের ১১ সেপ্টেম্বর থেকে ২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ক্ষমতায় ছিলেন। অর্থাৎ তিনি ২০ বছর ১০৫ দিন দেশ শাসন করেছেন। কিন্তু তিনি বৈশ্বিক রাজনীতিতে খুব বেশি পরিচিত ছিলেন না। ভিগদিস ফিনবোগাডোটির ১৯৮০ সালের ১ আগস্ট থেকে ১৯৯৬ সালের ১ আগস্ট পর্যন্ত রাষ্ট্রপ্রধান ছিলেন। তিনিও বৈশ্বিক মঞ্চে খুব বেশি পরিচিত ছিলেন না।

ডেম উজেনিন ডোমেনিকার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ১৯৮০ সালের ২১ জুলাই থেকে ১৯৯৫ সালের ১৪ জুন পর্যন্ত ১৪ বছর ৩২৮ দিন তার দেশ শাসন করেছেন। ম্যারি ম্যাকঅ্যালিজ ১৩ বছর ৩৬৪ দিনের জন্য আয়ারল্যান্ডের নারী প্রেসিডেন্ট ছিলেন।

জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মার্কেল বিশ্বের নারী রাষ্ট্রপ্রধানদের মধ্যে শীর্ষে অবস্থান করছেন। তিনি ২০০৫ সালের ২২ নভেম্বর ক্ষমতা গ্রহণের পর থেকে এখনও জার্মানির ক্ষমতায় আছেন। ইউনাইটেড নিউজ অব ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়, শেখ হাসিনা টানা তৃতীয়বারসহ চতুর্থবারের মতো বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন।

তিনি ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত প্রথমবারের মতো প্রধানমন্ত্রী হন। তিনি এরপর ২০১৮ সালে আবার ক্ষমতায় আসেন। ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সর্বোচ্চ আসন পায় তার দল।

তিনি ২০১৯ সালের ৭ জানুয়ারি টানা তৃতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথগ্রহণ করেন। তিনি ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ১৫ বছর পার করেছেন এবং এখন তার চতুর্থ মেয়াদের প্রথম বছরে আছেন। শেখ হাসিনা একমাত্র সরকারপ্রধান, যিনি ব্রিটেনের মার্গারেট থ্যাচারের রেকর্ড অতিক্রম করতে পেরেছেন।

থ্যাচার ১৯৭৯ সালের ৪ মে থেকে ১৯৯০ সালের ২৮ নভেম্বর পর্যন্ত ১১ বছর ২০৮ দিন ব্রিটেন শাসন করেছেন। ইন্দিরা গান্ধী বিভিন্ন সময় মিলিয়ে ১৫ বছরের বেশি ভারতের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। শ্রীলঙ্কার চন্দ্রিকা কুমারাতুঙ্গা ১১ বছর সাতদিন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ও প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

বিশ্বে সবচেয়ে বেশি দিন রাষ্ট্রপ্রধান ও সরকারপ্রধান হিসেবে এই চার নারী সর্বাধিক পরিচিত। ইন্দিরা গান্ধী, মার্গারেট থ্যাচার, অ্যাঙ্গেলা মার্কেল ও শেখ হাসিনা তাদের দেশের প্রেক্ষাপট থেকে একটি নতুন দিকনির্দেশনা এবং নতুন সম্ভাবনার দ্বার খুলে দিয়েছেন।

চতুর্থবার ক্ষমতা গ্রহণের মাধ্যমের হাসিনা অন্য বিশ্ববিখ্যাত নেত্রীদেরকে পেছনে ফেলেছেন। বাংলাদেশ গত কয়েক বছরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আর্থ-সামাজিক সমৃদ্ধি অর্জন করেছে। বাংলাদেশের জনগণের মাথাপিছু আয় ১৯০০ ডলার হয়েছে, যা কয়েক বছর আগে এক হাজার ডলারের নিচে ছিল।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শাসনামলে বাংলাদেশ সফলভাবে লিস্ট ডেভেলপড কান্ট্রির (এলডিসি) তালিকা থেকে বের হতে সক্ষম হয়েছে। বাংলাদেশের প্রথম স্যাটেলাইট বঙ্গবন্ধু ওয়ান মহাকাশে উৎক্ষেপিত হয়েছে, যা শেখ হাসিনার সরকারের আরেকটি বিরাট সফলতা।

সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ায় ডিজিটাল প্রযুক্তিগুলো সারা দেশের মানুষের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে গেছে। শেখ হাসিনা এখন ভিশন ২০২১ এবং ভিশন ২০৪১ বাস্তবায়নের মাধ্যমে বাংলাদেশকে একটি উন্নত দেশ হিসেবে গড়ে তোলার জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

বাংলাদেশে বর্তমান বিশ্বে একটি উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত হয়েছে। অনেক দেশ বাংলাদেশকে এখন একটি উদাহরণ হিসেবে বিবেচনা করছে। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংগঠন বাংলাদেশকে দক্ষতার সঙ্গে পরিচালিত করার জন্য শেখ হাসিনাকে সম্মানজনক পুরস্কারে ভূষিত করেছে।

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিয়ে করলেন নাবিলা

২৭ এপ্রিল ২০১৮

ফেইজবুকে আমরা

  • পুরনো সংখ্যা

    SatSunMonTueWedThuFri
    21222324252627
    282930    
           
      12345
    27282930   
           
          1
           
          1
    9101112131415
    30      
         12
           
          1
    2345678
    30      
       1234
    262728293031 
           
         12
           
      12345
    2728293031  
           
    891011121314
    2930     
           
        123
           
        123
    25262728   
           
    28293031   
           
          1
    2345678
    9101112131415
    3031     
          1
    30      
      12345
    272829    
           
        123
           
    28